রাঙ্গুনিয়া পাহাড়ি ধনে পাতার সুনাম সর্বত্রঃদাম পাচ্ছেননা কৃষকরা

0

হোসেন মিন্টু, বিভাগীয় ব্যুরো অফিসঃ

রাঙ্গুনিয়ার পাহাড়ি ধইন্যা পাতার সুনাম সর্বত্র। পাহাড়ি জমিতে প্রতিবছর বিলাতি ধইন্যা পাতার চাষ করে আসছে উত্তর রাঙ্গুনিয়ার বেতছড়িতে শত শত বাঙ্গালী, ও ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠির মানুষ। কিন্তু এবছর বিলাতি ধনে পাতার উৎপাদন বেশি হলেও, প্রচন্ড তাবেদাহর কারনে সব শেষ! কিছু কিছু যাদের আছে দাম পাচ্ছেন না কৃষকরা। আগের বছর প্রতি কেজি ১২০ টাকা থেকে ১৫০ টাকায় বিক্রি করলেও এ বছর ৪৫ থেকে ৫০ টাকায় বিলাতি ধনিয়া পাতা বিক্রি হচ্ছে। তবে চাষিরা ন্যায্যমূল্য না পাওয়ার জন্য চট্রগ্রাম কুমিল্লা ব্যবসায়ী সিন্ডিকেটকেই দায়ী করেছেন। বেতছড়ি কৃষক মুরাদ, ও শিশুমন চাকমা জানান, এ বছর একএকর জমিতে বিলাতি ধনিয়া পাতার চাষ করেছেন। উৎপাদন ভালো হয়েছে; কিন্তু দাম নেই। তাদের দাবি উৎপাদন খরচের তুলনায় দাম কম। প্রতি বর্ষা মৌসুমে রাঙ্গুনিয়ার পাহাড়ি জমিতে বিলাতি ধনেপাতার চাষ করে আসছে কৃষকরা। তাতে অনেকেই এখন স্বাবলম্বী।


অল্প পুঁজিতে বেশি লাভ। তাই এবারও রাঙ্গুনিয়ার রাণীরহাট বেতছড়ি পাশা পাশি রাঙ্গামাটির কাউখালী সাপছড়ি, মানিকছড়িতে ও বিভিন্ন এলাকায় চাষ হয়েছে ধনে পাতার। তাতে ফলনও হয়েছে বেশ ভাল। তবে উৎপাদন খরচের তুলনায় ন্যায্যমূল্য পাচ্ছে না বলে অভিযোগ কৃষকদের। এবার রাংগুনিয়ার রাণীরহাট বেতছড়িতে ধনেপাতার চাষ হয়েছে ২০ হেক্টর জমিতে। এখানকার উৎপাদিত ধনেপাতার বাজার মিলে বেতছড়িতে প্রতিদিন বিকালে। ব্যবসায়ীরা এখান থেকে ধইন্যা পাতা কিনে ট্রাকে করে চট্রগ্রাম কুমিল্লার নিমশারসহ ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় নিয়ে যায়। তবে ন্যায্য দাম পাওয়ার ব্যাপারে কৃষকদের অভিযোগ নিয়ে দুই ধরনের মত আছে কৃষি বিভাগে। রাঙ্গুনিয়া এলাকায় ধনে পাতা চাষের সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে হলে কৃষকদের সহজ শর্তে ঋণসহ প্রয়োজনীয় সহায়তা দেয়া দরকার বলে মনে করেন, এ বিষয়ে কৃষি কর্মকর্তাদের উদ্যোগ কামনা করেছেন এলাকার জনপ্রতিনিধিরা।

ক্রাইম ডায়রি//কৃষি

0total visits,0visits today

About Author

Leave A Reply